For a better experience please change your browser to CHROME, FIREFOX, OPERA or Internet Explorer.
কীভাবে একজন ওয়েব ডেভেলপার হবেন?

কীভাবে একজন ওয়েব ডেভেলপার হবেন?

প্রযুক্তিগত ক্যারিয়ারের ক্রমবর্ধমান উপায় হলো ওয়েব ডেভেলপমেন্ট। প্রযুক্তিগত ক্যারিয়ার গঠনে ওয়েব ডেভেলপমেন্টকে অন্যতম একটি ক্ষেত্র হিসেবে ধরা যায়।আর যার কেন্দ্রে রয়েছেন একজন ওয়েব ডেভেলপার।একটি ওয়েব সাইড তৈরি হতে ডেভেলপমেন্টর সকল কাজের জন্য ওয়েব ডেভেলপিং এর বিভিন্ন দিক সম্পর্কে জানতে হয়।

আসুন জেনে নেওয়া যাক ওয়েব ডেভেলার হওয়ার জন্য আপনার যেসব জিনিস জানতে হবে।

HTML/CSS শিখতে হবেঃ

এইচটিএমএল(html) এবং সিএসএস(css) হলো মার্কআপ ল্যাংগুয়েজ। এটি ওয়েব পেজের অংশ বা স্টাইল বিভিন্ন বিন্যাসে সজ্ঞায়িত করে।আপনি ইউটিউব থেকে এইচটিএমএল(html) ও সিএসএস(css) ল্যাংগুয়েজের উপর টিউটোরিয়াল দেখতে পারেন এবং শিখতে পারেন। এক্ষেত্রে যেকোনো একটি টিউটোরিয়াল সম্পূর্ণভাবে অনুসরন করলে বেশ উপকৃত হবেন।

Javascript শিখতে হবেঃ

Javascript বর্তমানে ইন্টারনেটে বহুল ব্যবহৃত জনপ্রিয় একটি স্ক্রিপ্টিং ল্যাংগুয়েজ। এটি একটি ক্লায়েন্ট সাইড স্ক্রিপ্টিং বা ব্রাউইজার স্ক্রিপ্টিং ল্যাগুয়েজ। যেকোনো ওয়েব এপ্লিকেশন তৈরি হতে ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর জন্য Javascript ব্যবহৃত হয়। এক্ষেত্রে আপনি ইউটিউব থেকে টিউটোরিয়াল দেখতে পারেন বা বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান থেকে Javascript এর উপর বিশেষ কোর্স ও মাস্টারক্লাস করতে পারেন।

ফ্রেমওয়ার্ক স্পর্কে জ্ঞানঃ

ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর জন্য ফ্রেম ওয়ার্ক শিখা প্রয়োজন। একটি ভালো ফ্রেম ওয়ার্ক শেখার জন্য ইউটিউব টিউটোরিয়াল দেখে শিখতে পারেন সাথে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে প্রশিক্ষণের মাধ্যমেও শিখতে পারেন।

সার্ভার সাইড ল্যাংগুয়েজ শিখুনঃ

সার্ভার সাইড ল্যাংগুয়েজ হিসেবে অনেক ল্যাংগুয়েজ রয়েছে। যেমন-php,node.js,django etc. ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এর কাজ করতে আপনি এরূপ যেকোন সার্ভার সাইড ল্যাংগুয়েজ শিখতে পারেন। এক্ষেত্রে ইউটিউবে টিউটোরিয়াল দেখেও শিখতে পারেন তবে পাশাপাশি সাজেস্ট করব একটি ভালো প্রতিষ্ঠান থেকে django এর উপর কোর্স বা অন্যান্য ল্যাংগুয়েজের উপর কোর্স করতে পারেন। এতে আপনি ভালোভাবে শিখতে পারবেন। অনেক ক্ষেত্রেই টিউটোরিয়াল দেখে হাতে-খড়ি হলেও দক্ষ বা ভালো করা যায় না তাই ভালো করে শিখতে হলে কোর্স করতে পারেন।

MYSQL শিখুনঃ


MYSQL ওয়েব ডেভেলপিং এর ক্ষেত্রে ডাটাবে জ এর কাজ করতে আপনাকে MYSQL শিখতে হবে। এটি তেমন কঠিক কিছু নয় বিভিন্ন টিউটোরিয়াল দেখেই শিখতে পারবেন।

ফটোশপের কাজ শেখাঃ

ওয়েবসাইট রঙ,নকশা ও বিভিন্ন স্টাইলিংয়ের কাজ করতে আপনাকে ফটোশপের কাজ শিখতে হবে।ফটোশপ শুধুমাত্র স্টাইলিং এর জন্য নয় আপনার ওয়েবসাইড আকর্ষণীয় করার জন্য দরকার।

কন্টেন্ট মেনেজমেন্ট সম্পর্কে জানাঃ

ওয়েব ডেভেলপিং এর জন্য আপনাকে কন্টেন্ট মেনেজমেন্ট সম্পর্কে জানতে হবে।এখানে wordpress,magento,joomla,shopify etc অন্যতম। কন্টেন্ট মেনেজমেন্ট এর জন্য সকল কিছুর পাশাপাশি এগুলো সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করা তেমন কষ্টকর হবে না।

SEO সম্পর্কে জানাঃ

বর্তমানে কম বেশি প্রায় মানুষই অনলাইনে কোনাকাটার উপর ঝুঁকে পরেছে। সময় ও বহুমুখী সুবিধার জন্য অনলাইন কেনাকাটায় স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করেন বেশি। এক্ষেত্রে কোনো পণ্য কেনার পূর্বে সাধারণত অনলাইনে অনুসন্ধান করেন। আর এই পণ্য বিপণনের ক্ষেত্রে সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (SEO) এর ভূমিকা অনেক তাই আপনার পেইজ আপলোড গতি, কী ওয়ার্ড রেঙ্কিং ও বিশ্বাসযোগ্য ডোমেন হতে SEO দক্ষতা ওয়েব ডেভেলপমেন্ট শিখা প্রয়োজন।

বিশ্লেষণ দক্ষতাঃ

আপনি একজন ওয়েব ডেভেলপার হতে চাইলে আপনাকে অবশ্যই সেই বিষয়ে দক্ষতা অর্জনের চেষ্টা করতে হবে। আপনি যত দক্ষ বিশ্লেষক হবেন আপনার ওয়েব সাইডটিও ততই সফলভাবে তৈরি করতে পারবেন।তাই নিজেকে সবসময় বিশ্লেষণাত্মক রাখা ও শেখার আগ্রহ জ্ঞাপন করা, কোডিং, নকশা, আধুনিকতার সাথে তাল দিয়ে চলতে হবে। সৃজনশীল মনোভাব গড়তে হবে সময়ের সাথে তাল দিয়ে আপডেট থাকতে হবে।

সময় ও ধৈর্য ধারন করাঃ

ওয়েব ডেভেলপিং এর ক্ষেত্রে বা একজন সফল ডেভেলপার হতে হলে নিজেকে সময় দিতে হবে,কাজকে সময় দিতে হবে। ধৈর্য্য সহকারে বিভিন্ন ল্যাংগুয়েজ শিখে আপনি ওয়েব ডেভেলপার হতে পারবেন।

মোটকথা নিয়মমাফিক কাজ করলে আপনি সফল হবেন তাই আলোচিত বিষয়গুলো শিখুন এবং ওয়েব ডেভলপিংয়ে ভালো করতে এই কোর্স করতে পারেন।ভালো ইন্সট্রাকটর থেকে ইন্সট্রাকশন পেলে আপনিও ওয়েব ডেভেলপিং এর সফল ও দক্ষ হয়ে উঠতে পারেন।

আপনার সর্বাত্মক সফলতা কমনা করি।

leave your comment