For a better experience please change your browser to CHROME, FIREFOX, OPERA or Internet Explorer.
একজন ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপার হয়ে উঠবেন কীভাবে?

একজন ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপার হয়ে উঠবেন কীভাবে?

একজন ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপারের চাহিদা বর্তমানে অনেক।ছোটো-বড় সকল কোম্পানিরই নিজেদের ওয়েবসাইট থাকে যা বানানোর জন্য দরকার হয় একজন দক্ষ ওয়েব ডেভেলপারের।যুগের সাথ তাল মিলিয়ে যেমন কর্মক্ষেত্র বৃদ্ধি পাচ্ছে ঠিক তেমনিভাবে ওয়েব ডেভেলপারদেরও কাজের ক্ষেত্র বৃদ্ধি পাচ্ছে।

আপনি কি জানেন ওয়ার্ল্ড ওয়াইড ওয়েবে প্রতিষ্ঠিত মোট ওয়েবসাইট সংখ্যা প্রায় ২ বিলিয়ন এবং সারাবিশ্বে মোট ওয়েব ডেভেলপারের সংখ্যা ২৩ মিলিয়ন? তাহলে আপনিই হিসেব করে দেখুন, আজকের এই যুগে ওয়েব ডেভেলপমেন্টে ক্যারিয়ার গড়তে চাইলে কী পরিমাণ প্রতিযোগিতার সম্মুখীন হতে হবে আপনাকে।

বর্তমানে ওয়েব ডেভেলপারের চাহিদা প্রতিনিয়ত বেড়েই চলেছে এবং ভবিষ্যতে আরো বাড়বে।ওয়েব ডেভেলপমেন্টের কাজ শিখে অনেকেই আপওয়ার্ক, ফাইভার, ফ্রীল্যান্সার, পিপলপারআওয়ার সহ আরও অনেক পপুলার মার্কেট প্লেসে কাজ করছে।

ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কি?

ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট বলতে বোঝায়  কোনো ওয়েব এপ্লিকেশনের বা ওয়েবসাইটের ফ্রন্ট এন্ড ব্যাক এন্ডে অর্থাৎ সার্ভার নিয়ে কাজ করা। ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কোর্সটি ওয়েব এর পরিপূর্ণ একটি কোর্স বলা যেতে পারে।একটি ওয়েবসাইটের কাঠামো ডিজাইন থেকে শুরু করে এর ডাটাবেজ ম্যানেজমেন্ট,রেসপন্সিভ করা সব কিছুই শেখানো হয় এই কোর্সে।ফ্রন্ট এন্ড অংশে শেখানো হয় এইচটিএমএল,সিএসএস,বুটস্ট্র্যাপ,জেকুয়েরি।ব্যাক এন্ড অংশে থাকবে পিএইচপি,ওওপি এবং মাইএসকিউএল।

ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট:

কোনো ওয়েবসাইটের ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট হলো যা এর ইউজাররা দেখতে পারেন।ওয়েব ডেভেলপমেন্টের একটি গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলো এই ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট।যেমনঃ কোনো ই-কমার্স সাইটের ডিজাইন এমনভাবে করা হয় যেনো একজন ক্রেতা সেই ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করতে পারেন সহজেই।এক্ষেত্রে এই ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।
ফ্রন্ট এন্ড অংশে থাকে এইচটিএমএল,সিএসএস,বুটস্ট্র্যাপ,জেকুয়েরি।

ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্ট:

ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্ট অনেকটা ওয়েবসাইটের নীল নকশা রুপ কাজ করে।যেকোনো ওয়েবসাইট ব্যবহারকারী যেকোনো বাটন ক্লিক করলে সহজেই যেনো রেজাল্ট দেখতে পারে তা নিয়ন্ত্রণ করে ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্ট।

এটি মূলত বিভিন্ন ধরনের কুয়েরি ও Application Programming Interface(API) এর মাধ্যমে সাইট ব্যবহারকারী ক্রেতার বা ইউজারের কমান্ডগুলোকে প্রসেস করে এবং সেই অনুযায়ী ওয়েবসাইটের ডেটাবেজ পরিচালনা করে।

ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্টে কিছু কোডিং ল্যাঙ্গুয়েজ ব্যবহার করে ওয়েবসাইটের কাজ করা হয়। ব্যাক এন্ড অংশে থাকে সাধারনত পিএইচপি,ওওপি এবং মাইএসকিউএল।

ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপরাররা কি কি কাজ করে?

ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট এমন একটি টেকনলজি যেখানে আপনি ফ্রন্ট এন্ড ডেভেলপমেন্ট এবং ব্যাক এন্ড ডেভেলপমেন্টের মধ্যে যোগসূত্র স্থাপন করে সহজেই আপনি সাইটের কাজ করতে পারবেন একাই।

বাস্তবিক দিক চিন্তা করলে একজন ওয়েব ডেভেলপরার এমন একজন যার কাজ হবে ফ্রন্ট এন্ড,ব্যাক এন্ড এবং সফটওয়্যার কোড ডেভেলপ করা।

ফুল স্ট্যাক ডেভেলপমেন্টে একজন ইউজার যেনো সহজে ওয়েবসাইটটি ব্যবহার করতে পারে।মূল কথা, ইউজারফ্রেন্ডলি ওয়েবসাইট ডেভেলপ করা।
অন্যদিকে একজন ইউজার কোনো বাটনে ক্লিক করে সহজেই যেনো তার কাঙ্খিত গন্তব্যে যেতে পারে তা সহজভাবে সম্পন্ন করাই ব্যাক এন্ডের কাজ।

এই কোর্স করে আমি কি প্রফেশনাল ওয়ার্ল্ডে যেতে পারবো? আমাকে কি কাজ পাইয়ে দেয়া হবে?

যদি কোর্সের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত সব শেষ করতে পারেন, তাহলে অবশ্যই পারবেন। কোর্সে অনেক গুলো প্রজেক্ট থাকবে, যেগুলো আপনি নিজের CV/Resume/Porfolio তে যোগ করতে পারবেন। ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে দেশীয় ব্র্যান্ড ও এজেন্সিগুলোতে কিভাবে নিয়োগ দেয়া হয়; তার জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোথায় প্র্যাকটিস করা উচিৎ, কিরকম পোর্টফোলিও থাকা উচিৎ, কিভাবে জব খুঁজে এপ্লাই করা উচিৎ, ইন্টারভিউতে কি ধরনের প্রশ্ন করা হয়, তার জন্য কি কি প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোম্পানিগুলো ঠিক কি কি ক্রাইটেরিয়া দেখে নিয়োগ করে, সেই ক্রাইটেরিয়াগুলো কিভাবে পূরণ করা উচিৎ – মোট কথা এন্ট্রি লেভেল ওয়েব ডেভেলপার হিসেবে জব পাওয়ার জন্য যা কিছু প্রয়োজন তার সবকিছু নিয়ে আপনাকে গাইডলাইন দেওয়া হবে প্রোগ্রামের শেষ দিকের সেশনগুলোতে।

জব এবং ইন্টারভিউ প্রিপারেশনে কি ধরণের সাহায্য করা হবে?

য়েব ডেভেলপার হিসেবে দেশী-বিদেশী সংস্থালোতে কিভাবে নিয়োগ দেয়া হয়; তার জন্য কিভাবে প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কি ধরনের পোর্টফোলিও থাকা উচিৎ, কিভাবে জব খুঁজে অ্যাপ্লাই করা উচিৎ, ইত্যাদি সব তথ্য আমাদের ইন্সট্রাক্টররা আপনাদের হাতে-কলমে শিখিয়ে দিবেন। ইন্টারভিউতে কি ধরনের প্রশ্ন করা হয়, তার জন্য কি কি প্রস্তুতি নেয়া উচিৎ, কোম্পানিগুলো ঠিক কি কি ক্রাইটেরিয়া দেখে ডেভেলপার নিয়োগ করে সবই জানতে পারবেন এই কোর্সের মাধ্যমে। সর্বোপরি এই প্রোগ্রাম শেষে আপনি যেনো চাকরিক্ষেত্রের জন্য সম্পূর্ণ প্রস্তুত থাকেন, সেসকল সাহায্যই করা হবে আপনাকে।

বর্তমানে বাংলাদেশের কয়েকটি স্বনামধন্য এডুটেক কোম্পানি যেমন বহুব্রীহি, Interactive Cares নিয়ে এসেছে সম্পূর্ন বাংলায় ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপমেন্ট কোর্স।এই করোনা কালীন সময়ে হাত গুটিয়ে না বসে থেকে অনলাইনে স্বল্প খরচে কোর্স করে আপনিও হয়ে উঠতে পারবেন একজন দক্ষ ওয়েব ডেভেলপার।

Interactive Cares এর প্রোগ্রামটিতে দেশসেরা ৬ জন মেন্টর হাতেকলমে আপনাকে শেখাবে HTML, CSS, Python, Django, JavaScript, React, React Native, SQL, Django Rest API, Redux, Java, তাও সম্পূর্ণ বাংলায়। ৫০০+ টি টপিক কভার করা হবে  ৬ মাসে, যাতে আপনি হয়ে ওঠেন সব ল্যাঙ্গুয়েজেই দক্ষ। আর প্রি-রেকর্ডেড লেকচার, লাইভ ক্লাস, মেন্টর সাপোর্ট গ্রুপ, ডিসকাশন ফোরাম, কুইজ, প্রজেক্টসহ অসংখ্য ম্যাটেরিয়াল থাকবে আপনার দক্ষতাকে আরও শাণিত করতে। আবার প্রোগ্রাম শেষে পাবেন জব প্রিপারেশন গাইডলাইন, মক ইন্টারভিউ, জব ফেয়ার এমনকি আমাদের রেকমেন্ডেশনে পাবেন নামকরা কোম্পানিতে চাকরির সুযোগ!

সব কন্টেন্টে থাকবে লাইফটাইম এক্সেস, আর সফলভাবে প্রোগ্রাম সম্পন্ন করলে পাবেন সার্টিফিকেট।  

মাত্র ৫,০০০ টাকায় এমন  দক্ষ ওয়েব ডেভেলপার হওয়ার সুযোগ মিস করলে আফসোস করতে হবেই!

প্রোগ্রাম সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন এই লিংকেঃ https://interactivecares-courses.com/full-stack-web-development/

আকর্ষণীয় ওয়েবসাইট কিংবা পছন্দসই অ্যাপ্লিকেশন দুটো তৈরির জন্যই প্রয়োজন ফুল স্ট্যাক ওয়েব ডেভেলপারস।দক্ষদের জন্য আছে কোনো কোম্পানির হয়ে কাজ করা কিংবা ফ্রিল্যান্সিং করার সুযোগ।তাই এই বিশাল মার্কেট প্লেসে নিজের জায়গাটি ধরে রাখতে চান?  

দেরী না করে আজই ফুল স্ট্যাক কোর্স করে হয়ে উঠুন একজন দক্ষ ওয়েব ডেভেলপার।

Also Read: Top 9 SEO Tips For E-Commerce Websites

leave your comment